বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ০৩:৫৩ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং
জনপ্রিয় অনলাইন সংবাদের পাতায় আপনাকে স্বাগতম
এমপি বদির গাড়িতে হামলা-ভাঙচুর, ‘গুলি’!

এমপি বদির গাড়িতে হামলা-ভাঙচুর, ‘গুলি’!

এমপি বদির গাড়িতে হামলা-ভাঙচুর, ‘গুলি’!

Spread the love

কক্সবাজার প্রতিনিধি: ইয়াবা কারবার নিয়ে বিতর্কিত কক্সবাজার-৪ (উখিয়া-টেকনাফ) আসনের সংসদ সদস্য আবদুর রহমান বদির গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার রাত সোয়া আটটার দিকে কক্সবাজার-টেকনাফ মহাসড়কের হোয়াইক্যং ইউনিয়নের কানজরপাড়া কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এমপি বদি দাবি করেছেন, চলন্ত গাড়িতে তাকে হত্যার উদ্দেশে গুলিও করা হয়েছে। তবে তিনি অক্ষত রয়েছেন। হামলার ঘটনায় গাড়িটির পেছনের কাঁচ ভেঙে গেছে। তিনি হামলাকারীদের মধ্যে দু’জনকে চিনতে পেরেছেন বলেও জানিয়েছেন। তারা হলেন আবদুল্লাহ এবং তার (আব্দুল্লাহ) শ্যালক।

তবে এই আব্দুল্লাহ টেকনাফ উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আবদুল্লাহ কিনা তা ষ্পষ্ট করে বলেননি। এদিকে বিএনপি নেতা আবদুল্লাহ রাতে জানিয়েছেন, তিনি এ ধরনের ন্যাক্কারজনক ঘটনার সঙ্গে জড়িত নন। যদিও ঘটনাস্থলের পাশেই তার শ্বশুর বাড়ি। দীর্ঘদিনের শত্রুতার জের ধরেই এমপি বদি বিএনপি নেতা আবদুল্লাহর বিরুদ্ধে এ জাতীয় ধারাবাহিক ষড়যন্ত্রমূলক এবং হয়রানিমূলক মামলা দায়ের করে আসছেন বলে তিনি দাবি করেন।

তবে ঘটনার সময় ‘গুলিবর্ষণ’ নিয়ে নানা সন্দেহের সৃষ্টি হয়েছে। এমপি বদি সহ তার অনুসারীদের দাবি-হামলাকারীদের হাতে বন্দুক দেখা গেছে। ঘটনাস্থলের পাশে আকাশমণি এবং নাঈমুদ্দিন নামের দুই শিশুও জানিয়েছে- তারাও হামলাকারীদের দেখেছে। তবে অনেকেই বলেছেন, ঘটনাস্থলে ‘গুলি’র শব্দ শোনা যায়নি।

স্থানীয় হোয়াইক্যং ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও জামায়াত নেতা মওলানা নূর আহমদ আনোয়ারি ঘটনার বিষয় নিয়ে পরষ্পর বিরোধী বক্তব্য দিয়েছেন। একবার বলেছেন, তিনি হামলার কথা শুনেছেন। তবে গুলিবর্ষণ নিয়ে তিনি সন্দিহান। কিছুক্ষণ পর ইউপি চেয়ারম্যান আবার জানান, এমপি বদির গাড়িতে গুলিবর্ষণ হয়েছে বলে তিনি জানতে পেরেছেন।

এলাকার সাবেক ইউপি মেম্বার সৈয়দ আহমদ ঘটনার ব্যাপারে বলেন, ‘আমরা এমপি বদিকে নিয়ে কানজরপাড়া স্টেশনে নির্বাচনি পথসভা করার জন্য অপেক্ষা করছিলাম। সেখানে মাইক নিয়ে স্লোগানও চলছিল। স্টেশনের উত্তরে মসজিদের সামনে হামলার ঘটনা ঘটেছে। তবে মাইকের কারণে আমরা গুলির শব্দ শুনতে পাইনি।’

স্থানীয় আওয়ামী লীগ কর্মী কামালুদ্দিন বলেন, গুলিবর্ষণের ঘটনা নিয়ে সন্দেহ রয়েছে। হামলার এ ঘটনার সাথে সাথেই এমপি বদির সমর্থকরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে হামলায় গাড়িটির ভাঙচুরের ছবি ছড়িয়ে দেয়।

স্থানীয় একজন গোয়েন্দা কর্মী বলেছেন, গুলি হলে কাঁচ ভেদ করে বের হয়ে যাবার কথা কিন্তু তা হয়নি। টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ জানিয়েছেন, তিনি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করছেন। গুলিবর্ষণের ঘটনা নিয়ে তিনি বলেন, এটা নিয়ে তদন্ত করা হচ্ছে।

এদিকে এমপি বদির গাড়িতে হামলার খবরে তার সমর্থকরা টেকনাফ ও উখিয়ায় বিভিন্ন স্থানে প্রতিবাদ মিছিল বের করে।


Comments are closed.




© All rights reserved © 2018 sangbaderpata.Com
কারিগরি সহায়তায় ইঞ্জিনিয়ার বিডি