মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ১০:৫০ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং
জনপ্রিয় অনলাইন সংবাদের পাতায় আপনাকে স্বাগতম
ঢাকায় ‘মৃত্যুর পরেও’ হাসপাতালে রেখে বিল ধরিয়ে দেওয়ার অভিযোগ

ঢাকায় ‘মৃত্যুর পরেও’ হাসপাতালে রেখে বিল ধরিয়ে দেওয়ার অভিযোগ

ঢাকায় ‘মৃত্যুর পরেও’ হাসপাতালে রেখে বিল ধরিয়ে দেওয়ার অভিযোগ

Spread the love

নিজস্ব প্রতিনিধি: রাজধানীর মহাখালীর ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এক রোগীর ‘মৃত্যুর পরেও’ প্রায় এক সপ্তাহ তাকে চিকিৎসাধীন রাখার কথা বলে বড় অংকের বিল ধরিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। মৃত শহীদুল ইসলামের বাড়ি লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে। গত ১৪ মে কিডনির সমস্যা নিয়ে এই হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন তিনি।

তার স্বজনদের অভিযোগ, গত এক সপ্তাহ ধরে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ রোগীর অবস্থা তাদের জানায়নি। শুক্রবার সন্ধ্যায় শহীদুলের স্বজনরা হাসপাতালের কর্মকর্তাদের কাছে রোগীর অবস্থা জানতে চাইলে মারা যাওয়ার কথা বলা হয় তাদের।

শহীদুল ইসলামের ছেলে কামাল অভিযোগ করেন, তার বাবাকে ২০ দিনে ২৩টি ডায়ালাইসিস দেওয়ার কথা বলেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

“২০ দিনে ২৩টা ডায়ালাইসিস কীভাবে দেয়? আমরা কয়েকবার অন্য হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছি। কিন্তু তারা আমাদের রোগীকে ‌নিতে দেয়নি। আমার ধারণা, উনি ১৪ তারিখে মারা গেছেন। এরপরও তারা আমার বাবাকে নিয়ে ব্যবসা করেছে।”

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বাবার চিকিৎসা বাবদ ১০ লাখ টাকা বিল করেছে বলে জানান তিনি।

শাহাদাত হোসেন নামে শহীদুলের আরেক স্বজনও অভিযোগ করেন, তার আত্মীয় আগেই মারা গিয়েছেন।

“আগে প্রতিদিন বিলের জন্য হাসপাতাল থেকে ফোন দেওয়া হত। কিন্তু গত এক সপ্তাহ ধরে বিলের বিষয়ে কিছু বলছে না। এতে আমাদের সন্দেহ হয়। আজ চাপাচাপি করার পর রাতে মারা যাওয়ার কথা স্বীকার করেছে।”

এ বিষয়ে জানতে চাইলে হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. আশীষ কুমার চক্রবর্তী রোগীর স্বজনদের অভিযোগ অস্বীকার করেন।

তিনি বলেন, “আমাদের পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ চেষ্টা করা হয়েছে। কিন্তু বাঁচানো সম্ভব হয়নি। তার দুটি কিডনি বিকল ছিল। গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় এখানে ভর্তি হয়েছিলেন।

“রোগীর স্বজনদের মানসিক অবস্থা থেকে এ ধরনের অভিযোগ করেছেন।”

বিষয়টি নিয়ে সন্ধ্যায় হাসপাতালের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সঙ্গে রোগীর স্বজনদের বাকবিতণ্ডায় উত্তাপ ছড়ালে সেখানে পুলিশ মোতায়েন করা হয়।


Comments are closed.




© All rights reserved © 2018 sangbaderpata.Com
কারিগরি সহায়তায় ইঞ্জিনিয়ার বিডি