রবিবার, ০১ নভেম্বর ২০২০, ০২:০১ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং
জনপ্রিয় অনলাইন সংবাদের পাতায় আপনাকে স্বাগতম
বাবরি মসজিদ সমস্যার সমাধানে যা বললেন রবিশঙ্কর

বাবরি মসজিদ সমস্যার সমাধানে যা বললেন রবিশঙ্কর

বাবরি মসজিদ সমস্যার সমাধানে যা বললেন রবিশঙ্কর

Spread the love

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: বাবরি মসজিদ ও রাম জন্মভূমি ইস্যুতে সৃষ্ট মামলার নিষ্পত্তি করতে ভারতের সুপ্রিম কোর্ট ৩ সদস্যের মধ্যস্থকারী নির্বাচন করেছেন। তাদের তিন জনের মধ্যে একজন হলেন ভারতের ধর্মীয় গুরুও আর্ট অব লিভিংয়ের প্রতিষ্ঠাতা শ্রীশ্রী রবিশংকর। যিনি বিশ্বব্যাপী গুরুজি ও গুরুদেব নামে সমধিক পরিচিত।

অযোধ্যা মামলার শুনানিতে সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছে এখন বিষয়টি নিয়ে মধ্যস্থতা করবেন তিন জন। তার মধ্যে অন্য দুজনের সঙ্গেই আছেন আধ্যাত্মিক গুরু শ্রীশ্রী রবিশঙ্কর।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলোর প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, আদালত বিতর্কিত এই মামলায় মধ্যস্থতা করার জন্য তিন সদস্যের যে প্যানেল ঠিক করে দিয়েছেন তারা হলেন দেশটির সুপ্রিম কোর্টের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি ফকির মোহাম্মদ ইব্রাহিম খলিফুল্লাহ, ধর্মীয় গুরু শ্রীশ্রী রবিশঙ্কর ও মধ্যস্থতাকারী বিশেষজ্ঞ শ্রীরাম পাঁচু।

মধ্যস্থতাকারীর দায়িত্ব সম্পর্কে টুইটারে শ্রীশ্রী রবিশঙ্কর জানান, ‘মধ্যস্থাকারী দায়িত্বের বিষয়টি আমার কাছে স্বপ্ন সত্যি হওয়ার মতো। ইগোকে দূরে সরিয়ে রেখে একসঙ্গে সমস্যার সমাধান করতে হবে।’

তিনি লিখেছেন, এটা আমার কাছে স্বপ্ন সত্যি হওয়ার মতো। সব পক্ষকে শ্রদ্ধা করে বলছি আমাদের কাজ হবে দীর্ঘ দিন ধরে চলতে থাকা বিতর্ক মিটিয়ে দেয়া।

গতকাল (শুক্রবার) দায়িত্ব পেলেও অনেক দিন ধরেই রাম মন্দির-বাবরি মসজিদ সংক্রান্ত বিবাদ মেটাতে আলোচনার উপর জোর দিয়ে এসেছেন তিনি।

অযোধ্যায় স্থাপিত বাবরি মসজিদের জায়গা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিতর্ক চলে আসছে। উগ্র হিন্দু সংগঠন এ জায়গাকে কেন্দ্র বাবরি মসজিদ ভেঙে ফেলে। সে জায়গা নিয়ে চলছে বিরোধ ও আদালতে ঝুলছে মামলা।

দীর্ঘ দিনের এ মামলা নিষ্পত্তিতে সুপ্রিমকোর্টের ৫ বিচারপতির বেঞ্চ একজন বিচারপতির নেতৃত্বে ৩ সদস্যের কমিটিকে বাবরি মসজিদ ও রাম জন্মভূমি মামলার নিষ্পত্তিতে মধ্যস্থতাকারী হিসেবে দায়িত্ব দিয়েছে।

মধ্যস্থতাকারীর দায়িত্বে থাকা এ তিন ব্যক্তি এক মাস পর সুপ্রিম কোর্টে নিজেদের রিপোর্ট জমা দেবেন। মধ্যস্থতাকারী কমিটির ৩ সদস্যকেই গোপনে নিজেদের কাজ কার নির্দেশ দেয় শীর্ষ আদালত। এ ৩ সদস্যের নেতৃত্ব দেবেন সাবেক বিচারপতি ইব্রাহিম কালিফুল্লাহ।

মধ্যস্থতাকারী টিম ফৈজাবাদে এই মামলার বিভিন্ন পক্ষের সঙ্গে কথা বলবেন। এক মাসের মধ্যে রিপোর্ট তৈরি করে তা সুপ্রিম কোর্টে জমা দেবে। এ কমিটির কাজ গোপন থাকবে বলেও জানান আদালত।

মধ্যস্থতাকারী কমিটির সদস্যরা সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতে পারবেন না। আর সংবাদ মাধ্যমগুলো এ সংক্রান্ত কোনো খবর প্রকাশ করতে পারবে না বলেও জানান আদালত।


Comments are closed.




© All rights reserved © 2018 sangbaderpata.Com
কারিগরি সহায়তায় ইঞ্জিনিয়ার বিডি