মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ১২:৩০ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং
জনপ্রিয় অনলাইন সংবাদের পাতায় আপনাকে স্বাগতম
ভরা বাসে নারীর সঙ্গে অসভ্যতা, অতঃপর…

ভরা বাসে নারীর সঙ্গে অসভ্যতা, অতঃপর…

ভরা বাসে নারীর সঙ্গে অসভ্যতা, অতঃপর...

Spread the love

সংবাদের পাতা ডেস্ক: ঘটনা ভারতের বর্ধমানের। চলন্ত বাসে এক যুবক তার সঙ্গে অসভ্যতা করছে বলে কন্ডাক্টরকে জানিয়েছিলেন এক নারী। কিন্তু কন্ডাক্টর বা বাসের অন্য যাত্রীরা কেউ প্রতিবাদ করেননি। আরও কয়েক কিলোমিটার যাওয়ার পর বর্ধমান স্টেশনের আগে উড়ালসেতুর মুখে বর্ধমান-কাটোয়া রুটের ওই বাসটি দাঁড়াতেই সোজা কর্তব্যরত ট্র্যাফিক পুলিশের কাছে হাজির হয়ে যান তিনি। ওই যুবককে টেনেহিঁচড়ে নামিয়ে তুলে দেওয়া হয় পুলিশের হাতে। পরে বর্ধমান থানায় দায়ের অভিযোগের ভিত্তিতে মঙ্গলকোটের নতুনহাটের যুবক রাজেশ সাহাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার দুপুরে মঙ্গলকোটের কৈচর থেকে বাসে উঠেছিলেন ৪০ বছরের ওই নারী। তার স্বামী একটি মামলায় বর্ধমান কেন্দ্রীয় সংশোধনাগারে জেল-হাজতে রয়েছেন। তার সঙ্গে দেখা করতেই এসেছিলেন তিনি।

আর অভিযুক্ত রাজেশ ভাতারের নর্জা মোড় থেকে ওই বাসে উঠেছিলেন। ওই নারীর অভিযোগ, ‘‘বাসে ওঠার পর আমার পিছনে দাঁড়ায় ছেলেটি। তারপর থেকে সমানে নোংরামি করছিল। বেশ কয়েকবার বারণ করলেও শোনেনি। কন্ডাক্টরকে বলতে গেলে তিনি জানিয়ে দেন, আপনাদের সমস্যা আপনারা মিটিয়ে নেন।’’
পরে ওই নারী পুলিশকে জানান, কারও কাছে সাহায্য না পেয়ে অসহায় বোধ করছিলেন তিনি। তারপর নিজেই নিজেকে বোঝান, না কেঁদে পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে হবে। বর্ধমানে বাস ঢুকলেই চিৎকার করে পুলিশ ডাকার পরিকল্পনাও করেন।

তিনি বলেন, ‘‘শেষে আর সহ্য করতে পারছিলাম না। বর্ধমান স্টেশনের কাছে বাস দাঁড়াতেই নেমে পড়ি। রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকা অনেকেই সাহায্য করেন। তাদের সাহায্যেই ট্র্যাফিক পুলিশকে ঘটনাটি জানাই।’’ এরপর বর্ধমান থানার পুলিশ এসে তাদের দু’জনকেই থানায় নিয়ে যায়।

বর্ধমানের আইসি তুষারকান্তি করের দাবি, ‘‘ওই যুবক আমাদের কাছে ঘটনার কথা স্বীকার করে নিয়েছেন। লজ্জাজনক ঘটনা। আমরা সঙ্গে সঙ্গে গ্রেফতার করে নিয়েছি।’’

যদিও সংবাদমাধ্যমকের কাছে ওই যুবকের দাবি, ‘‘আমাকে ফাঁসানো হয়েছে। আমি ভিক্ষা করতে বেরিয়েছি।’’

পুলিশকর্মীদের অবশ্য দাবি, যুবকের হাবভাব বা পোশাক দেখে ভিক্ষুক বলে মনে হচ্ছে না। আজ শনিবার তাকে আদালতে তোলার কথা রয়েছে।

সূত্র: আনন্দবাজার


Comments are closed.




© All rights reserved © 2018 sangbaderpata.Com
কারিগরি সহায়তায় ইঞ্জিনিয়ার বিডি