রবিবার, ২৫ অক্টোবর ২০২০, ০৯:০০ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং
জনপ্রিয় অনলাইন সংবাদের পাতায় আপনাকে স্বাগতম
ভোলায় গ্যাস ভিত্তিক ২২৫ মেগাওয়ার্ট বিদ্যুৎ প্লান্টের উদ্বোধন

ভোলায় গ্যাস ভিত্তিক ২২৫ মেগাওয়ার্ট বিদ্যুৎ প্লান্টের উদ্বোধন

ভোলায় গ্যাস ভিত্তিক ২২৫ মেগাওয়ার্ট বিদ্যুৎ প্লান্টের উদ্বোধন

Spread the love

ভোলা প্রতিনিধি: আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হল ভোলার গ্যাস ভিত্তিক ২২৫ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন কমবাইন্ড সাইকেল পাওয়ার প্লান্ট। আজ বেলা ১১টায় গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রের উদ্বোধন করেন।

ভোলার জেলা প্রশাসক কার্যালয় প্রাঙ্গণে ভিডিও কনফারেন্স সভায় উপস্থিত ছিলেন ভোলা-২ আসনের সংসদ সদস্য আলী আজম মুকুল। এ ছাড়া ভোলার জেলা প্রশাসক মো. মাসুদ আলম ছিদ্দিক, জেলা পরিষদ প্রশাসক আব্দুল মমিন টুলুসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

এই বিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে উৎপাদিত বিদ্যুৎ স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে জাতীয় গ্রিডে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হবে। এতে এক দিকে যেমন বরিশাল খুলনা অঞ্চলের ১৬ জেলায় নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ সম্ভব হবে অপর দিকে তেমনি শিল্পকারখানা স্থাপনের মাধ্যমে দেশের দক্ষিণাঞ্চলের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের মাত্রায় আরও গতি সঞ্চার করবে।

গ্যাস সমৃদ্ধ দ্বীপজেলা ভোলায় বিপুল পরিমান গ্যাসের মজুত রয়েছে। এক দশক আগে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর ভোলার শাহবাজপুর গ্যাসক্ষেত্রের গ্যাস বাণিজ্যিকভাবে কাজে লাগানোর উদ্যোগ নেয়া হয়। আবাসিক সংযোগ দেয়ার পাশাপাশি শাহজাবপুর গ্যাস ব্যবহার করে বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের কাজ শুরু করে সরকার। এ লক্ষে ২০১৩ সালের ৯ এপ্রিল ইসলামী ডেভলোপমেন্ট ব্যাংক ও বাংলাদেশ সরকারের যৌথ অথায়নে প্রায় ১ হাজার ৮’শ কোটি টাকা ব্যায়ে ২২৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের জন্য চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। বোরহানউদ্দিন উপজেলার কুতুবা গ্রামে ২২ একর জমির উপর ২০১৩ সালের ৩০ মে চায়নার চেংদা ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি এর নির্মাণ কাজ শুরু করে এবং ২০১৫ সালের ২ সেপ্টেম্বর পরীক্ষামূলক বিদ্যুৎ উৎপাদন এবং জাতীয় গ্রিডে বিদ্যুৎ সরবরাহ শুরু করে। বুধবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে জাতীয় গ্রিডে বিদ্যুৎ সরবরাহের কাজ উদ্বোধন করেন।

এদিকে বিদ্যুৎ প্লান্ট উদ্বোধনের খবরে আনন্দে ভাসছে বোরহানউদ্দিন তথা দ্বীপজেলার মানুষ। প্লানটি আনুষ্ঠানিকভাবে চালু হওয়ায় জেলা বিদ্যুৎ সমস্যা সমাধানের পাশাপাশি নিরবিচ্ছন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ সম্ভব হবে।

২২৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎপ্লান্টের চিফ ইঞ্জিনিয়ার মো. মোফাজ্জল হোসেন সরকার জানান, বিদ্যুৎ খাতে বর্তমান সরকার অভাবনীয় সাফল্য অর্জন করেছে। ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেয়ার যে প্রতিশ্রুতি সরকারের রয়েছে এই প্লান্ট স্থাপনের মধ্য দিয়ে তার বাস্তবায়ন আরও একধাপ এগিয়ে গেল।

ভোলার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক জানান, দশ বছর আগে ভোলা জেলায় শতকরা ১৫ ভাগ বিদ্যুৎ চাহিদা পূরণ হত। বর্তমানে ৯৫ ভাগ চাহিদা পূরণ হচ্ছে। আগামী ৪ মাসের মধ্যে ভোলা জেলায় শতভাগ বিদ্যুৎ চাহিদা পূরণ হবে প্রত্যাশা ব্যক্ত করেছেন ভোলার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক। এ ছাড়া ভোলায় এ ধরণের আরও ৩টি বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণাধিন রয়েছে। এগুলো চালু হলে ভোলা থেকে জাতীয় গ্রিয়ে ২ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ সরবরাহ করা সম্ভব হবে। এতে করে গ্রমাগুলো ধীরে ধীরে শহরে পরিণত হচ্ছে।

ইতোমধ্যে ভোলায় গ্যাস ভিত্তিক ৩৪ মেগাওয়াটের একটি রেন্টাল বিদ্যুৎপ্লান্ট, বেসরকারি উদ্যোগে ১০০ মেগাওয়াটের অপর একটি বিদ্যুৎপ্লান্ট, এছাড়া বেসরকারি উদ্দ্যোগে আরও ২২৫ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন অপর একটি বিদ্যুৎপ্লান্ট স্থাপনের কাজ চলছে।


Comments are closed.




© All rights reserved © 2018 sangbaderpata.Com
কারিগরি সহায়তায় ইঞ্জিনিয়ার বিডি