শুক্রবার, ১৪ মে ২০২১, ০৭:৫৭ অপরাহ্ন

ব্রেকিং
জনপ্রিয় অনলাইন সংবাদের পাতায় আপনাকে স্বাগতম
রোহিঙ্গা শিবিরে ৫৪ ভরি স্বর্ণসহ অন্যান্য মালামাল চুরি, আটক ৪

রোহিঙ্গা শিবিরে ৫৪ ভরি স্বর্ণসহ অন্যান্য মালামাল চুরি, আটক ৪

রোহিঙ্গা শিবিরে ৫৪ ভরি স্বর্ণসহ অন্যান্য মালামাল চুরি, আটক ৪

Spread the love

কক্সবাজার প্রতিনিধি : কক্সবাজারের টেকনাফের নিবন্ধিত নয়াপাড়া শরণার্থী শিবিরের একটি ঘর থেকে গচ্ছিত ৫৪ ভরি স্বর্ণ, নগদ ৫০ হাজার টাকা, একটি কম্পিউটার এবং একটি ডিএসএলআর ক্যামেরা চুরি হয়েছে। অভিযোগ পেয়ে এপিবিএন পুলিশ ২০ ভরি স্বর্ণ উদ্ধার করেছে। এ ঘটনায় জড়িত চার জনকে আটক করা হয়েছে।নয়াপাড়া শরণার্থী শিবিরের ব্লক-ই, শেড-৯০৮/২, এমআরসি নং- ৬০১০৮ তে বসবাসরত আবুল কাশেমের ছেলে মো. সুলতান (৩৫) এর বাড়ি থেকে এসব স্বর্ণালংকার চুরি হয়।

কক্সবাজার ১৬ আমর্ড ব্যাটালিয়ন পুলিশ (এপিবিএন) এর অধিনায়ক তারিকুল ইসলাম তারিক গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, রবিবার রাতে মো. সুলতানের বাড়িতে চার ভাইবোনের গচ্ছিত ৫৪ ভরি স্বর্ণসহ অন্যান্য মালামাল চুরি হয়। চুরির বিষয়ে ক্যাম্পের এপিবিএন পুলিশকে অভিযোগ দায়ের করলে এসব চুরির সন্দেহে ব্লক-এফ/৮ সৈয়দুর রহমানের ছেলে আব্দুল্লাহকে আটক করে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে সে চুরির কথা স্বীকার করে। এক পর্যায়ে নিজ ঘর থেকে ২ ভরি স্বর্ণ বের করে দেয় এবং এ চুরির সাথে জড়িত ব্লক-ডি, শেড-৭৩৫/৪, এমআরসি নং-১২০৬৪ নং এর ফজর আহম্মদের ছেলে নুরুল কবির (৫৩), ব্লক-এফ/৮, আব্দুল্লাহর স্ত্রী রহিমা খাতুন (৩৫), ব্লক- ই, এমআরসি নং- ৬৪৩২ রশিদ আহম্মদের ছেলে জাফর (২৬), দুদু মিয়ার ছেলে হারুন (২৪), কক্সবাজার সদরের ঘোনার পাড়ার হাজী সৈয়দুর রহমানের ছেলে নুর আলম (৩৫) গণের নাম স্বীকার করে।
জিজ্ঞাসাবাদের জন্য অভিযুক্তদের ক্যাম্পে নিয়ে আসা হয় এবং বিষয়টি টেকনাফ মডেল থানা পুলিশকে জানানো হয়।

পরে টেকনাফ থানা পুলিশ ও নয়াপাড়া এপিবিএন পুলিশের যৌথ জিজ্ঞাসাবাদে আরও ১৮ ভরি স্বর্ণের কথা স্বীকার করলে তা উদ্ধার করে। তিনি আরও জানান, এই ঘটনার সাথে জড়িত থাকায় প্রাথমিকভাবে সাক্ষ্য-প্রমাণ পেয়ে আব্দুল্লাহ, আব্দুল্লার স্ত্রী রহিমা খাতুন, নুর আলম, নুরুল কবিরকে গ্রেফতার করে টেকনাফ মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে l


Comments are closed.




© All rights reserved © 2018 sangbaderpata.Com
কারিগরি সহায়তায় ইঞ্জিনিয়ার বিডি