মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ০৪:৩৪ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং
জনপ্রিয় অনলাইন সংবাদের পাতায় আপনাকে স্বাগতম
শেয়ারবাজার টেনে নামাচ্ছে ব্যাংক-আর্থিক প্রতিষ্ঠান

শেয়ারবাজার টেনে নামাচ্ছে ব্যাংক-আর্থিক প্রতিষ্ঠান

শেয়ারবাজার টেনে নামাচ্ছে ব্যাংক-আর্থিক প্রতিষ্ঠান

Spread the love

নিজস্ব প্রতিনিধি: আগের কার্যদিবসের ধারাবাহিকতায় বুধবারও দেশের শেয়ারবাজারে লেনদেন হওয়া বেশিরভাগ ব্যাংকের শেয়ারের দরপতন হয়েছে। এতে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) মূল্য সূচকের পতন হয়েছে।

ব্যাংকের পাশাপাশি এদিন লেনদেন অংশ নেয়া সিংহভাগ আর্থিক প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম কমেছে। যার নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে অন্য খাতের কোম্পানিগুলোতে। ফলে বীমা খাতসহ অন্য খাতের বেশির ভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমেছে। এর মাধ্যমে টানা দুই কার্যদিবস পতনের মধ্যে থাকল দেশের শেয়ারবাজার। দুই কার্যদিবসেই ব্যাংক ও আর্থিক খাতের সিংহভাগ কোম্পানির দাম কমেছে।

বুধবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া ব্যাংক খাতের ৩০টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৮টির শেয়ার দাম বেড়েছে। কমেছে ১৫টির। আর আর্থিক খাতের ২৩টির মধ্যে শেয়ার দাম বেড়েছে মাত্র পাঁচটির, কমেছে ১৩টির। অপরদিকে কয়েকদিন ধরে বীমা খাতের সিংহভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার দাম বাড়লেও এদিন বীমা খাতের ১৮টির দাম বেড়েছে এবং কমেছে ২৮টির।

ব্যাংক, আর্থিক প্রতিষ্ঠান এবং বীমা খাতসহ অন্য খাতগুলোর বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমায় সব মিলিয়ে ডিএসইতে দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে ১০৫টি প্রতিষ্ঠান। বিপরীতে দাম কমেছে ১৯০টির। আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৫১টির দাম।

বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমায় ডিএসইর প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ২৬ পয়েন্ট কমে পাঁচ হাজার ৭১১ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। অপর দুটি মূল্য সূচকের মধ্যে ডিএসই শরিয়াহ্ সূচক আগের দিনের তুলনায় পাঁচ পয়েন্ট কমে এক হাজার ৩১৪ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। আর ডিএসই-৩০ আগের দিনের তুলনায় ১৫ পয়েন্ট কমে এক হাজার ৯৯৮ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

মূল্য সূচক ও বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমলেও ডিএসইতে লেনদেন কিছুটা বেড়েছে। দিনভর ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৬৮৯ কোটি ২৪ লাখ টাকা। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয় ৬৭৯ কোটি ৪৫ লাখ টাকা। সে হিসেবে আগের কার্যদিবসের তুলনায় লেনদেন কমেছে ৯ কোটি ৭৯ লাখ টাকা।

টাকার অঙ্কে এদিন ডিএসইতে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশনের শেয়ার। কোম্পানিটির ৩৭ কোটি ২৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে থাকা ফরচুন সুজের ৩৫ কোটি ২০ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ৩১ কোটি ৮০ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে মুন্নু সিরামিক।

লেনদেনে এরপর রয়েছে- বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবলস, মেঘনা পেট্রোলিয়াম, খুলনা পাওয়ার, স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যাল, লিগাসি ফুটওয়্যার, ন্যাশনাল পলিমার এবং মুন্নু জুট স্টাফলার্স।

অপরদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সার্বিক মূল্য সূচক সিএসসিএক্স ৩৬ পয়েন্ট কমে ১০ হাজার ৫৮৬ পয়েন্টে অবস্থান করছে। লেনদেন হয়েছে ২৩ কোটি ১১ লাখ টাকা। লেনদেন হওয়া ২৬৮টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৯০টির দাম বেড়েছে। কমেছে ১৩৮টির। আর ৪০টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।


Comments are closed.




© All rights reserved © 2018 sangbaderpata.Com
কারিগরি সহায়তায় ইঞ্জিনিয়ার বিডি